বাঙ্গালী
Wednesday 24th of May 2017
code: 80824
বাবরি মসজিদ ধ্বংস ঘটনার পুনঃতদন্ত করবে ভারতের বিচার বিভাগ

আবনা ডেস্ক: ভারতের উত্তর প্রদেশের বাবরি মসজিদ ধ্বংস ঘটনার যৌথ বিচার বিভাগীয় তদন্তের ইঙ্গিত দিল ভারতের সর্বোচ্চ আদালত। সুপ্রিম কোর্ট এখনই কোনও সিদ্ধান্তে উপনীত না হলেও বাবরি কান্ড নিয়ে যে ফের আরও একবার উত্তাল হতে চলেছে ভারত, তেমনই একটা ইঙ্গিত মিলল। পুনরুজ্জীবিত হতে চলেছে বাবরি মসজিদ ধ্বংস মামলা। লাক্ষ্যে এবং রায় বরেলি, বাবরি মসজিদ কান্ডে এই দুই মামলাকেই পুনরুজ্জীবিত হওয়ার দিকেই ইঙ্গিত দিয়েছে সর্বোচ্চ আদালত। আগামী ২২ মার্চ এ দুই মামলাকে পুনরুজ্জীবিত করার ক্ষেত্রে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবে সুপ্রিম কোর্ট। বাবরি কান্ডের দগদগে ঘায়ে উত্তাপের আঁচ লাগতেই ব্যাকফুটে বিজেপির তিন শীর্ষ স্থানীয় নেতা যাদের মধ্যে একজন এখন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের মামলায় চার্জশিটে নাম থাকতে পারে বিজেপির ‘লৌহপুরুষ’ লালকৃষ্ণ আদভানী, বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা মুরলি মনোহর যোশী এবং কেন্দ্রীয় পানি সম্পদমন্ত্রী উমা ভারতীর।
‘টেকনিক্যাল গ্রাউন্ডে লালকৃষ্ণ আদভানীকে ছেড়ে দেওয়া হোক, এটা কখনই মেনে নেওয়া হবে না। যেটার অনুমতি দেওয়া যেতে পারে, ১৩ জন অভিযুক্তের বিরুদ্ধে একটি সম্পূরক অভিযোগপত্র জমা দেওয়া হোক এবং সেখানে অবশ্যই অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের বিষয়টি রাখা হোক। আমরা ট্রায়াল কোর্টের কাছে বিষয়টি রাখব এবং যৌথ তদন্তের বিষয়টি উল্লেখ করব’, কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআইকে এমনটাই জানায় সুপ্রিম কোর্ট। রাজনৈতিক মহলের একাংশ মনে করছে, বাবরি মামলা হঠাৎ মাথাচাড়া দিতেই সুপ্ত বারুদে যেন মৃদু আগুনস্পর্শ হয়ে গেল। উত্তরপ্রদেশ ভোটে ইতিমধ্যেই ‘জীবন বাজি’ রেখেছেন দেশের প্রধানমন্ত্রী। এই সময়েই দিন চারেকের মধ্যে তিনবার রোড শো করে ‘প্রেস্টিজ ফাইটে’ সমাজবাদী এবং কংগ্রেসকে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে দিয়েছেন উত্তরপ্রদেশের ‘দত্তক পুত্র’ নরেন্দ্র দামোদার দাস মোদী। গোটা ইউপিতে প্রচারে যাতে কোনও কমতি না থাকে সেদিকে বিশেষ নজরদারি রয়েছে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহেরও। বিজেপিকে পাল্টা চ্যালেঞ্জ দিয়েছেন ভূমিপুত্র তথা জোটের মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব। কংগ্রেস থেকে ময়দানে নেমেছেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধীও। এরই মধ্যে তিন শীর্ষ নেতৃত্বের নাম অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের মামালায় জড়াতে পারে, এই আশঙ্কাই বিজেপির কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলে দিয়েছে। সুপ্রিম কোর্ট চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে ২২ মার্চ। তবে সর্বোচ্চ আদালতের এই ইঙ্গিতকেই যে সমাজবাদী পার্টি-বহুজন সমাজবাদী পার্টি এবং কংগ্রেস সুকৌশলে ব্যবহার করবে তা নিয়ে কোনও সন্দেহ কোনও রাজনৈতিক মহলেই নেই। সূত্র : জি নিউজ।

user comment
 

latest article

  চীনা জঙ্গিবিমানের ধাওয়া খেয়ে পালাল ...
  টিপু সুলতান মসজিদ চত্বরে ১৪৪ ধারা জারি
  হিজাবকে কখনই ত্যাগ করবো না: কিমিয়া ...
  তুরস্ক থেকে পাচার হচ্ছে সিরিয় শিশুদের ...
  বিশ্বকে বিপজ্জনক করে তুলছেন ট্রাম্প: ...
  বিশ্বকে বিপজ্জনক করে তুলছেন ট্রাম্প: ...
  ইহুদিবাদী ইসরাইল এখনও একটি অবৈধ রাষ্ট্র : ...
  দক্ষিণ সুদানে বাস্তুচ্যুত ২০ লক্ষাধিক ...
  ভবিষ্যত যুদ্ধে ইসরাইলের কোনো অংশ ...
  ইরাকে আত্মঘাতী হামলায় ১১ জন হতাহত