বাঙ্গালী
Tuesday 18th of June 2024
0
نفر 0

আলেম হত্যার প্রতিবাদে ক্ষুব্ধ নাইজেরিয়ার শিয়া মুসলমানরা

ইসলামিক মুভমেন্ট অব নাইজেরিয়ার শত শত সদস্য এদেশের পার্লামেন্ট অভিমুখে মিছিল করেছে। এ সময় বিক্ষুব্ধ জনতা শাইখ কাসেম উমার সুকুটু হত্যার সাথে জড়িতদের বিচার ও শাস্তির দাবী জানায়।

হলে বাইত (আ.) বার্তা সংস্থা (আবনা): ইসলামিক মুভমেন্ট অব নাইজেরিয়ার উচ্চতর পরিষদের সদস্য হত্যার নিন্দায় বিক্ষোভ করেছে নাইজেরিয়ার আহলে বাইত (আ.) এর অনুসারীরা।

ঐ মুভমেন্টের সদস্যরা পার্লামেন্ট অভিমুখে বিক্ষোভ করে বিশিষ্ট আলেম শাইখ কাসেম উমার সুকুটু হত্যার সাথে জড়িতদের বিচার ও শাস্তির দাবী জানায়।

শাইখ কাসেম উমার ছিলেন দেশের সুকুটু শহরের আঞ্চলিক প্রধান। আবুজায় শাইখ যাকযাকির মুক্তির দাবিতে অনুষ্ঠিত শান্তিপূর্ণ মিছিলে পুলিশী হামলায় গুলিবিদ্ধ হন তিনি। গুরুতর আহত অবস্থায় তিনি গত সোমবার শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

২০১৫ সালে নাইজেরিয়ার সেনাবাহিনী কর্তৃক এ মুভমেন্টের সদস্যদের বিরুদ্ধে চালানো গণহত্যা পর -যাতে ৩৫০ জন শিয়া মুসলিম শহীদ হন- বহুবার নাইজেরিয়ার নিরাপত্তা রক্ষী বাহিনীর হামলার শিকার হয়েছে এদেশের আহলে বাইত (আ.) এর অনুসারীরা। এছাড়া গুপ্ত হত্যার শিকারও হয়েছেন তাদের অনেকে।

ইসলামিক মুভমেন্ট অব নাইজেরিয়ার সদস্য আব্দুল্লাহ মুসা জানান, মুভমেন্টের সদস্যদেরকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হচ্ছে। মুভমেন্টের জন্য শাইখ কাসেম উমার ছিলেন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ব। তিনি মুভমেন্টের উত্তরাঞ্চলীয় প্রধান ছিলেন। আর এ কারণেই তাকে গুলি করা হয়েছে। আমরা কখনই শাইখ কাসেমের হত্যাকারীদেরকে ক্ষমা করবো না। হত্যাকারীদেরকে তাদের প্রাপ্য শাস্তি দেওয়া হবে।

ঐ বিক্ষোভ মিছিলে শাইখ যাকযাকির মুক্তির দাবীতে বিভিন্ন শ্লোগান দেয় অংশগ্রহণকারীরা।

প্রসঙ্গত, বিগত ২ বছর যাবত শাইখ যাকযাকি ও তার স্ত্রীকে আদালতের নির্দেশ উপেক্ষা করে, বিনা কারণে আটকে রেখেছে দেশটির সরকার। তার চিকিৎসকের ভাষ্যানুযায়ী যতদ্রুত সম্ভব তাকে উন্নত চিকিৎসা প্রদান করা জরুরী।#

0
0% (نفر 0)
 
نظر شما در مورد این مطلب ؟
 
امتیاز شما به این مطلب ؟
اشتراک گذاری در شبکه های اجتماعی:

latest article

শেইখ দাক্কাকের নাগরিকত্ব বাতিল ও ...
মিশরের ইখওয়ানুল মুসলিমিনের ...
শোকানুষ্ঠানে মাতম করছেন ...
‘দুই শতাধিক ধর্ষণ করেছি’
চল্লিশ বছর পর আবার...
ইরানের ইসলামী বিপ্লব মুসলমান ...
আফগানিস্তানে শিয়া মসজিদে হামলার ...
ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন ইতালির এক ...
কেন ইসরাইলের বিরুদ্ধে যুদ্ধে ...
দেশ ছাড়তে গিয়ে বিমানবন্দরে ...

 
user comment